Rahmania Madrasah Sirajganj

হযরত মাওলানা নোমান ফয়জীর ইন্তেকালে আল্লামা বাবুনগরীর শোক প্রকাশ

মুফতীয়ে আযম আল্লামা মুফতী ফয়জুল্লাহ (রহ.) এর দৌহিত্র, মেখল মাদরাসার মহাপরিচালক, নূরানী তালীমূল কুরআন বোর্ড চট্টগ্রাম বাংলাদেশের কার্যকরী সভাপতি ও পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক,হাটহাজারী মাদরাসার মজলিসে শূরার অন্যতম সদস্য
হযরত মাওলানা নোমান ফয়জীর ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমীর,নূরানী তালীমূল কুরআন বোর্ড চট্টগ্রাম বাংলাদেশের চেয়ারম্যান, হাটহাজারী মাদরাসার শিক্ষা পরিচালক শায়খুল হাদীস আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী।

গতকাল ২২ মার্চ সংবাদমাধ্যমে প্রেরিত এক শোক বার্তায় আমীরে হেফাজত বলেন,হযরত মাওলানা নোমান ফয়জী রহ. আমার অত্যন্ত মুহাব্বতের মানুষ ছিলেন। তাঁর সাথে ছিলো আমার হৃদয়ের সম্পর্ক।
তিনি দেশের সর্বজন শ্রদ্ধেয় ও শীর্ষ একজন আলেম,মুরুব্বি ছিলেন৷ তাঁর ইন্তেকালে বাংলার ইলমাকাশের একটি উজ্জ্বল নক্ষত্র ঝরে পড়েছে ৷ চট্টগ্রামবাসী হারিয়েছে একজন নিবেদিতপ্রাণ মুখলিছ আলেমে দ্বীনকে ৷হযরত মাওলানা নোমান ফয়জী রহ. এর ইন্তেকালে আমি গভীরভাবে শোকাহত।

আমীরে হেফাজত বলেন, হযরত মাওলানা নোমান ফয়জী রহ. তাঁর নানা মুফতীয়ে আযম আল্লামা ফয়জুল্লাহ রহ. এর যোগ্য উত্তসূরী ছিলেন। তাঁর ইন্তেকালে ইসলামি অঙ্গনে যে শূন্যতার সৃষ্টি হয়েছে তা কভু পূরণ হবার নয়। ইতিহাস তার অমর কীর্তি চিরকাল স্মরণ রাখবে।হযরত মাওলানা নোমান ফয়জী রহ. দীর্ঘ ১৭ বছর অত্যন্ত দক্ষতা ও বিচক্ষণতার সাথে মেখল মাদরাসার মোহতামীমের গুরু দায়িত্ব আঞ্জাম দিয়েছেন। দরসে নেজামীর অন্তর্ভুক্ত বহু কিতাবের শরাহ (ব্যখ্যা) তিনি লিখেছেন।

মরহুম রহ. তাঁর বর্ণাঢ্য জীবনীতে দ্বীন ও ইসলামের বহুমুখী খেদমত করে গেছেন।সৎ ও যোগ্য তিন সন্তান,মেখল মাদরাসার সিনিয়র শিক্ষক ও হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক মাওলানা জাকারিয়া নোমান ফয়জী, মাওলানা ফয়েজ ও মেখলের সিনিয়র শিক্ষক মুফতী মাহমুদ হাসান ফয়জী পিতার পদাঙ্ক অনুসরণ করে দরস তাদরীস সহ দ্বীনের নানা খেদমতের আঞ্জাম দিয়ে যাচ্ছেন ।

উম্মাহর এই ক্লান্তিলগ্নে হযরত মাওলানা নোমান ফয়জী রহ. এর মতো হক ও ন্যায় নীতির উপর অটল-অবিচল, নিষ্ঠাবান আলেম আমাদের জন্য খুবি প্রয়োজন ছিলো। কিন্তু আল্লাহ তায়া’লার হুকুমে আজ আমাদেরকে কাঁদিয়ে তিনি চলে গেলেন না ফেরার দেশে।

আমীরে হেফাজত আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী মরহুমের শোক সন্তপ্ত পরিবারবর্গের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে বলেন, মহান প্রভুর দরবারে আমি দুআ করি, আল্লাহ তাআলা তাঁর সকল দ্বীনি খেদমতকে কবুল করুন, তাঁর রেখে যাওয়া আমানত মেখল মাদরাসাকে কিয়ামত পর্যন্ত কায়েম রাখুন এবং তাঁর ত্রুটি-বিচ্যুতি ক্ষমা করে জান্নাতের সর্বোচ্চ স্থান দান করুন, আমিন

পড়েছেনঃ 416 জন

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *