আরবী তারিখঃ এখন ১৬ জিলহজ ১৪৪৫ হিজরি মুতাবিক, ২৩ জুন ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, রোজ রবিবার, সময় বিকাল ৫:৫৭ মিনিট
খানকাহ এর সুন্নতী ইজতেমা ও মারকাজী মজলিসে আইম্মাহ সমূহ
সুন্নতী ইজতেমাঃ প্রতি বছরের মাহে মুহাররম, মাহে রবিউস সানী ও মাহে রজব এর প্রথম সপ্তাহের বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার হযরাতে সালেকীনদের জন্য রহমানিয়া মাদরাসা সিরাজগঞ্জ প্রাঙ্গনে খানকাহে ইমদাদিয়া আশরাফিয়ার সুন্নতী ইজতেমা অনুষ্ঠিত হবে ইনশাআল্লাহ।
মারকাজী মজলিসে আইম্মাহঃ ১. মাহে শাউয়ালের শেষ শনিবার। ২. মাহে যিলহজের শেষ শনিবার। ৩. মাহে সফরের শেষ শনিবার। ৪. মাহে রবিউস সানীর শেষ শনিবার। ৫. মাহে জুমাদাল আখিরাহ এর শেষ শনিবার। ৬. মাহে রজবের শেষ সপ্তাহে বিষয় ভিত্তিক মজলিস।
বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ- ✓✓ প্রতি আরবী মাসের শেষ বৃহস্পতিবার রহমানিয়া মাদরাসার সকলের জন্য মাসিক সুন্নতী ইজতেমা হবে। ✓✓ প্রতি বছর ২০ শাবান থেকে ৩০ রমাযানুল মুবারক পর্যন্ত ৪০ দিন, রমাযানুল মুবারক এর প্রথম ১৫ দিন, রমাযানুল মুবারক এর শেষ দশক হযরাতে সালেকীনদের জন্য এতেকাফ হবে ইনশাআল্লাহ।
সুন্নতী মজলিস/মজলিসে আইম্মাহ সমূহ (আঞ্চলিক)
সুন্নতী মজলিসঃ ১. ২৯ জুন ২৪ ইং রোজ শনিবার শাহজাদপুরের গাড়াদহ ফিল্ড জামে মসজিদে সুন্নতী মজলিস। ২. ১৩ জুলাই ২৪ ইং রোজ শনিবার উল্লাপাড়ার ডেফলবাড়ী নুরানীয়া হাফিজিয়া মাদরাসায় সুন্নতী মজলিস।
মজলিসে আইম্মাহঃ ১১ জুলাই ২৪ ইং রোজ বৃহস্পতিবার চরমেটুয়ানী মসজিদে ধুকুরিয়াবেড়া ইউনিয়নের মজলিসে আইম্মাহ।

স্বেচ্ছায় অর্থদাতা সদস্য আবেদন ফরম

রহমানিয়া ইমদাদুল উলুম মাদরাসা সিরাজগঞ্জ ও এর পরিচালনাধীন প্রতিষ্ঠান সমূহের জন্য নির্ধারিত

হযরত আবু হুরাইরা রা. থেকে বর্নিত, রসুলুল্লাহ সল্লল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেনঃ- ঈমানদার ব্যক্তির মৃত্যুর পর তার আমাল ও নেক কাজ সমূহের (সদকায়ে জারিয়ার) মধ্য থেকে যেগুলোর সওয়াব তার কবরে পৌছতে থাকবে, তা হলোঃ
১. ইলম, যা অন্যকে শিক্ষা দিয়েছেন ও প্রচার করেছেন।
২. নেক সন্তান যাকে সে দুনিয়াতে রেখে গিয়েছেন।
৩. কুরআন শরীফ যা সে ওয়ারিশ সুত্রে রেখে গিয়েছেন।
৪. মসজিদ যা নির্মান করে গিয়েছেন।
৫. সরাইখানা যা মুসাফিরদের জন্য বানিয়েছিল।
৬. পানি পান করার জন্য নহর খনন করেছিল।
৭. জীবদ্দশায় ও সুস্থ অবস্থায় নিজ সম্পদ হতে যা খরচ করেছিল।
সুত্রঃ মুসলিম শরীফ : ১৬৩১, তিরমিজি শরীফ : ১৩৭৬, সুনানে ইবনে মাজাহ : ২৪২।

কুরআন-সুন্নাহর আলোকে তালিম-তরবিয়তের সাথে উপরক্ত আমালসহ বিভিন্ন দ্বীনি তাকাজা সমূহ বাস্তবায়নে রহমানিয়া ইমদাদুল উলুম মাদরাসা সিরাজগঞ্জ ও এর পরিচালনাধীন প্রতিষ্ঠান সমূহ অঙ্গিকারবদ্ধ। অতএব মাদরাসার সাধারন প্রয়োজন বাস্তবায়নের সার্বিক সহযোগিতায় মুসলমানদের স্বেচ্ছায় এগিয়ে আসা একান্ত কর্তব্য।

দাতার শারাইত (শর্ত) সমূহ

১. আমি অবশ্যই আমার হালাল অর্থ থেকেই মাদরাসায় অর্থ প্রদান করছি/করবো ইনশাআল্লাহ।
২. আমার দেয়া সকল অর্থ মাদরাসা ও মাদরাসা সংশ্লিষ্ট ফান্ড অনুযায়ী যে কোন বৈধ কাজে খরচ করা যাবে।
৩. দানকৃত অর্থের বিনিময়ে আমার কোন দাবি বা হস্তক্ষেপ থাকবে না।
৪. আমার আর্থিক সচ্ছলতা অনুযায়ী আমার দান পর্যায়ক্রমে স্বেচ্ছায় বাড়ানোর চেষ্টা করবো ইনশাআল্লাহ।
৫. আমার মৃত্যুর আগে আমি আমার ওয়ারিসগনের যে কাউকে এই দান চালিয়ে নেয়ার অনুরোধ করবো। (ঐচ্ছিক)
৬. আমার অর্থ সমূহ নিজ দাইত্বে আমি বা আমার নিয়োগকৃত ব্যক্তি সঠিক সময়ে মাদরাসায় পৌছে দিবে ইনশাআল্লাহ।
৭. লেনদেনের ব্যাপারে মাদরাসার অতিত-বর্তমান-ভবিষ্যতের সকল সিদ্ধান্ত সেচ্ছায় মেনে নিচ্ছি।
৮. অতিতের দানকৃত অর্থের ব্যাপারেও আমি উল্লেখিত শারাইত স্বেচ্ছায় মেনে নিচ্ছি।
৯. রহমানিয়া মাদরাসা সিরাজগঞ্জ ও এর পরিচালনাধীন প্রতিষ্ঠান সমূহের ক্ষেত্রেও উপরক্ত নিয়মাবলি মেনে নিচ্ছি।
১০. আমার মাধ্যমে আসা অন্যান্যদের দানের ক্ষেত্রেও উপরক্ত শারাইত বাস্তবায়িত হবে।

দাতা আবেদন