Rahmania Madrasah Sirajganj

থার্টিফার্স্ট নাইট একটি কুসংস্কার, -মুফতি শফি কাসেমী দা. বা.

থার্টিফার্স্ট নাইট একটি কুসংস্কার ও শরীয়ত পরিপন্থী কাজ। মুসলিম ফ্যামিলির সন্তানদের জন্য এধরণের গর্হিত কাজ থেকে বিরত থাকা উচিত। এ উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহণ করা, সেখানে চাঁদা দেওয়া সবই নাজায়েয।আল্লাহ তা’আলা ইরশাদ করেন, تعاونوا على البر والتقوى ولا تعاونوا على الاثم والعدوان…তোমরা নেক কাজ এবং তাকওয়ার ব্যাপারে একে অপরের সহযোগিতা করো, গুণাহ এবং নাফরমানীর ব্যাপারে একে অপরকে সহযোগিতা করো না।এ রাত উপলক্ষে খাবারের ব্যবস্থা করা:কোন নির্দিষ্ট রাতে খাওয়া দাওয়ার ব্যাবস্থা করে রজনী পালন নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বা সাহাবায়ে কেরাম রাদিআল্লাহু তা’আলা আনহুম থেকে বর্ণিত নেই। বরং এমনটি না করার কথাই তাদের থেকে প্রমাণিত হয়। আবার এটা যেহেতু বিজাতীয়দের কালচার আর তাদের কুসংস্কার অনুসরণ করলে হাদিসের ভাষ্য অনুযায়ী তাদের দলভুক্ত হবার ধমকি এসেছে। عَنِ ابْنِ عُمَرَ، قَالَ قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صلى الله عليه وسلم ‏ “‏ مَنْ تَشَبَّهَ بِقَوْمٍ فَهُوَ مِنْهُمْ ‏”‏ ‏.হযরত ইবনে ‘উমার রাদিআল্লাহু তা’আলা আনহু থেকে বর্ণিত তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেনঃ যে ব্যক্তি বিজাতির সাদৃশ্য অবলম্বন করে, সে তাদের দলভুক্ত গণ্য হবে।(সুনানে আবু দাউদ, হাদীস নং ৪০৩১) তাই এ রাতে ভিন্ন ভাবে জাঁকজমকপূর্ণ খাওয়া দাওয়ার ইনতেজাম করাও শরীয়ত সম্মত নয়।এমনিতেই নববর্ষ উদযাপন শরীয়ত পরিপন্থী কাজ। তার সাথে যুক্ত হয়েছে আরো নানা রকম কুসংস্কার। অতএব ৩১ ডিসেম্বর দিবাগত রাতে জিরো আওয়ারে নেচেগেয়ে থার্টিফার্স্ট নাইট উদযাপন বা এ সংক্রান্ত কোনো অনুষ্ঠানে আমরা অংশগ্রহণ না করি। আল্লাহ তা’আলা মুসলিম উম্মাহকে এই গুনাহের কাজ থেকে বিরত থাকার তাওফীক দান করুন। আমীন।

পড়েছেনঃ 691 জন