আরবী তারিখঃ এখন ৫ শাওয়াল ১৪৪৫ হিজরি মুতাবিক ১৪ এপ্রিল ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, রোজ রবিবার, সময় রাত ৮:২৩ মিনিট
এলানঃ-
১৪৪৫-১৪৪৬ হিজরী, ২০২৪-২০২৫ ইং এর মাসিক সুন্নতী ইজতেমা সমূহ
* ২৫ এপ্রিল ২৪ ইং বৃহস্পতিবার মাগরিব-ইশা মাদরাসার সকলের জন্য
* ৩০-৩১ মে ২৪ ইং বৃহস্পতিবার ফজর-শুক্রবার মাগরিব পর্যন্ত সালেকীনদের জন্য
* ২৭ জুন ২৪ ইং বৃহস্পতিবার মাগরিব-ইশা মাদরাসার সকলের জন্য
* ২৫-২৬ জুলাই ২৪ ইং বৃহস্পতিবার ফজর-শুক্রবার মাগরিব পর্যন্ত সালেকীনদের জন্য
* ২৯ আগষ্ট ২৪ ইং বৃহস্পতিবার মাগরিব-ইশা মাদরাসার সকলের জন্য
* ২৬-২৭ সেপ্টেম্বর ২৪ ইং বৃহস্পতিবার ফজর-শুক্রবার মাগরিব পর্যন্ত সালেকীনদের জন্য
* ২৪ অক্টোবর ২৪ ইং বৃহস্পতিবার মাগরিব-ইশা মাদরাসার সকলের জন্য
* ২৮-২৯ নভেম্বর ২৪ ইং বৃহস্পতিবার ফজর-শুক্রবার মাগরিব পর্যন্ত সালেকীনদের জন্য
* ২৬ ডিসেম্বর ২৪ ইং বৃহস্পতিবার মাগরিব-ইশা মাদরাসার সকলের জন্য
* ৩০-৩১ জানুয়ারী ২৫ ইং বৃহস্পতিবার ফজর-শুক্রবার মাগরিব পর্যন্ত সালেকীনদের জন্য
* ২৭ ফেব্রুয়ারী ২৫ ইং বৃহস্পতিবার মাগরিব-ইশা মাদরাসার সকলের জন্য
* মার্চ ২৫ ইং এজতেমা সালেকীনদের জন্য

তায়াম্মুমের ফরজ ও সুন্নত সমূহ

نحمده و نصلي علي رسوله الكريم اما بعد

ভাই শীতের সময় বা গরমের সময় অসুস্থ ব্যক্তিদের জন্য তায়ম্মুমের প্রয়োজন পরে, এজন্য তায়াম্মুমের ফারায়েজ ও সুনানগুলো জানা খুবই প্রয়োজন৷

তায়াম্মুমের ফরয ৩ টি

১. নিয়ত করা অর্থাত নামায পড়া বা কুরআন তিলাওয়াতের জন্য পবিত্রতা অর্জনের নিয়ত করা।

(সূরা নিসা, আয়াত : ৪৩)

২. অতঃপর মাটি বা মাটি জাতীয় কোন পবিত্র জিনিসে প্রথমবার হাত মেরে সমস্ত মুখমণ্ডল মাসাহ্ করা।

৩. অনুরূপভাবে দ্বিতীয়বার মাটিতে হাত মেরে দুই হাত কনুইসহ মাসাহ্ করা। (ঐ/ হিদায়া, ১ : ৫০-৫১/ আলমগীরী, ১:২৫-২৬)

তায়াম্মুমের সুন্নত ৬ টি

১. তায়াম্মুমের শুরুতে بِسْمِ اللّٰهِ الرَّحْمٰنِ الرَّحِيْمِ পড়া। দেখুনঃ মুসনাদে আহমাদঃ ১২৬৯৪
২. মাটিতে হাত রাখার সময় আঙ্গুলসমূহ ফাঁক করে রাখা
৩. মাটিতে উভয় হাত রাখার পর হস্তদ্বয় সামান্য আগে পিছে নিয়ে মাটিতে ঘর্ষণ করা। দেখুনঃ মুসলিম শরীফঃ ৩৬৮
৪. তারপর উভয় হাত ঝেড়ে নেয়া। দেখুনঃ মুসলিম শরীফঃ ৩৬৮
৫. তায়াম্মুমের তরতীব ঠিক রাখা। অর্থাৎ প্রথমে সম্পূর্ণ মুখমণ্ডল, তারপর ডান হাত তারপর বাম হাত কনুইসহ মাসাহ্ করা।
দেখুনঃ আবু দাউদ শরীফঃ ৩৩০
৬. চেহারা ও হাতের মাসাহ্-এর মাঝে বিলম্ব না করা। দেখুনঃ আবু দাউদ শরীফঃ ৩৩০

Loading