Rahmania Madrasah Sirajganj

জুমু’আর দিনের বিশেষ আমল সমূহ

জুমু’আর দিন যেহেতু অন্যান্য দিন গুলোর চেয়ে একটু ব্যতিক্রম, তাই মাদরাসার মামুলাতের মধ্যেও কিছু পরিবর্তন থাকে, নিচে জুমু’আর দিনের আমল সমূহ উল্লেখ করা হলো, যা গতানুগতিক অন্যান্য মামুলাতের সাথে পালন করা অতি বাধ্যতামূলক।

প্রথম হাদিস

عن أوس بن أوس قال : قال رسول الله صلى الله عليه وسلم : من غسل يوم الجمعة واغتسل، وبكر وابتكر، ومشى ولم يركب، ودنا من الإمام واستمع، ولم يلغ كان له بكل خطوة عمل سنة أجر صيامها وقيامها- أخرجه أبو داود ، والترمذي ، والنسائي ، وابن ماجه

অর্থঃ যে ব্যক্তি জুমুআর দিন, ১.পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার কাজ সেরে উত্তমরূপে গোসল করবে, ২.আগে আগে মসজিদে গমন করবে, ৩.পায়ে হেটে মসজিদে গমন করবে, ৪.ইমামের কাছাকাছি বসার চেষ্টা করবে, ৫.মনোযোগ সহকারে খুৎবা শ্রবণ করবে, ৬.অহেতুক কাজ ও কথাবার্তা থেকে বিরত থাকবে ।
আল্লাহ তাআলা তাকে প্রতি কদমে এক বছর নফল নামাজ ও নফল রোজার সওয়াব দান করবেন। -আসহাবে সুনান

২য় হাদিস

عن أبي سَعيدٍ الخُدريِّ أنَّ النبيِّ صلَّى اللهُ عليه وسلَّم قال: مَن قَرَأَ سورةَ الكَهفِ يومَ الجُمُعةِ أضاءَ له من النورِ ما بَينَ الجُمُعتينِ- رواه البيهقي  3 / 353

عن أبي سعيد الخدري قال : من قرأ سورة الكهف ليلة الجمعة أضاء له من النور فيما بينه وبين البيت العتيق – رواه البيهقي  3 /113

অর্থঃ যে ব্যক্তি জুমুআর দিন, সুরা কাহাফ তিলাওয়াত করবে, তার জন্য এমন নুর প্রজ্বলিত হবে, যা এই জুমুআ থেকে পরবর্তী জুমুআ পর্যন্ত প্রজ্বলিত থাকবে, অন্য রেওয়ায়াতে আছে, উক্ত নুর পাঠকারী থেকে বাইতুল্লাহ শরীফ পর্যন্ত বিস্তৃত থাকবে। -বাইহাকী শরীফ

৩য় হাদিস

عن أبي هريرة قال : قال من صلى صلاة العصر من يوم الجمعة فقال قبل أن يقوم مكانه : اللهم صل على محمد ن النبي الأمي وعلى آله وسلم تسليما ، ثمانين مرة ، غُفِرت له ذنوب ثمانين عاما ، وكتبت له عبادة ثمانين سنة- قال السخاوي في القول البديع في الصلاة على الحبيب الشفيع 284

অর্থঃ যে ব্যক্তি জুমুআর দিনে আসরের নামাজের পর নিজ স্থান ত্যাগ করার পূর্বে اَللَّهُمَّ صَلِّ عَلَى مُحَمَّدٍ النَّبِيِّ الْأُمِّيِّ وَعَلَى آلِهِ وَسَلِّم تَسْلِيْمَا দরুদ শরীফ ৮০ বার পাঠ করবে, আল্লাহ তাআলা তাঁর ৮০ বছরের গুনাহ মাফ করে দিবেন এবং তার আমল নামায় ৮০ বছরের নেক আমলের সওয়াব লিখে দেবেন। -ফাযায়েলে দরুদ শরীফ

৪র্থ হাদিস

عن جابر بن عبدالله يومُ الجمعةِ ثِنتا عشرةَ – يريدُ – ساعةً لا يوجَدُ مسلِمٌ يسألُ اللَّهَ عزَّ وجلَّ شيئًا إلَّا آتاهُ اللَّهُ عزَّ وجلَّ فالتمِسوها آخرَ ساعةٍ بعدَ العصرِ- أخرجه أبو داود 1/150

অর্থঃ শুক্রবারে এমন একটি সময় রয়েছে, যখন কোন মুসলমান বান্দা আল্লাহ তাআলার কাছে যা কিছু চায় আল্লাহ তাআলা অবশ্যই তাকে দান করেন, অতএব তোমরা আসরের নামাজের পর মাগরিবের পূর্বে উক্ত সময় তালাশ করো। -আবু দাউদ শরীফ

জুমু’আর দিন আসরের নামাজ থেকে মাগরিবের নামাজ পর্যন্ত সকল ত্বলাবা-আসাতিযাগনের ইতিকাফের নিয়তে মাদ্রাসার মসজিদে অবস্থান ও চলমান মামলাত সমূহে অংশগ্রহণ বাধ্যতামূলক, এ সময় সকল ত্বলাবা-আসাতিযাগনের সকল প্রকার ছুটি নিষিদ্ধ থাকে। আসরের নামাজের পর ৮০ বার দরুদ শরীফ পাঠ শেষে গুরুত্বপূর্ণ দ্বীনি আলোচনা হয়, মাগরিবের আজানের ২০ মিনিট পূর্বে সূরায়ে ফাতিহার আমল ও সম্মিলিতভাবে হাদীসে বর্ণিত ফযিলতের আশায় মাদ্রাসার যাবতীয় বিষয়, বন্ধু-বান্ধবদের যাবতীয় বিষয় ও বর্তমান পরিস্থিতি সহ অন্যান্য সকল বিষয়কে সামনে রেখে দুআ অনুষ্ঠিত হয়।

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ উপরোক্ত মামুলাতসহ মাদ্রাসার নির্দেশিত সকল মামুলাতে, সকল ত্বলাবা-আসাতিযাগনের সার্বিক অংশগ্রহণ বাধ্যতামূলক, মাদ্রাসার সকল ত্বলাবা-আসাতিযাদের চলমান রাজনৈতিক-অরাজনৈতিক দলসমূহের সাথে যে কোন প্রকার সম্পৃক্ততা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ, মাদ্রাসার সকল ত্বলাবাদের জন্য যে কোন প্রকার মোবাইল ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ, এসংক্রান্ত যেকোনো বিষয়ে মাদ্রাসা কর্তৃক তদন্তের পর কেউ অপরাধী প্রমাণিত হলে তাকে খুবই সম্মানের সহিত বহিষ্কার করার সর্বোচ্চ সম্মিলিত সিদ্ধান্ত রয়েছে।