Rahmania Madrasah Sirajganj

ঘুম সংক্রান্ত করনীয় সুন্নত সমূহ


نحمدہ و نصلي علي
 رسوله الکریم اما بعد

আল্লাহ তাআলার অনেক বড় নিআমত ঘুম, আর এই ঘুম যদি সুন্নত তরিকায় হয়ে যায় তাহলে সারারাত ঘুমিয়ে থেকে সওয়াবের আশা করা যায়৷

ঘুমানোর সুন্নত সমূহ

১. ইশার নামাযের পর যথাসম্ভব তাড়াতাড়ি ঘুমাতে চেষ্টা করা, যাতে তাহাজ্জুদের জন্য উঠা সহজ হয়।

(বুখারী, হাঃ নং ৫৪৭)

বি.দ্র. নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম যমীন, চৌকি, কাপড়ের বিছানা, চাটাই, চামড়ার বিছানা ইত্যাদির উপর শয়ন করেছেন বলে হাদীসে বর্ণিত আছে।

(বুখারী শরীফ, হাঃ নং ২০৬৯/ শামায়িলে তিরমিযী, পৃ. ২২)

২. উযু করে শয়ন করা।

(বুখারী শরীফ, হাঃ নং ৬৩১১)

৩. শোয়ার পূর্বে বিছানা ৩ বার ভালভাবে ঝেড়ে নেয়া।

(বুখারী শরীফ, হাঃ নং ৬৩২০)

৪. ঘুমানোর পূর্বে উভয় চোখে তিনবার করে সুরমা লাগানা।

(মুস্তাদরাক, হাঃ নং ৮২৪৯)

৫. ঘুমানোর পূর্বে তাসবীহে ফাতেমী অর্থাত ৩৩ বার সূবাহানাল্লাহ, ৩৩ বার আলহামদুলিল্লাহ এবং ৩৪ বার আল্লাহু আকবার পড়া।

(বুখারী শরীফ, হাঃ নং ৩১১৩)

৬. সূরা ইখলাস, সূরা ফালাক্ব ও সূরা নাস প্রত্যেকটা তিনবার করে পড়ে হাতে দম করে যতটুকু সম্ভব মাথা হতে পা পর্যন্ত সমস্ত শরীরে হাত মুছে দেয়া। তিনবার এরূপ করা।

(বুখারী শরীফ, হাঃ নং ৫০১৭)

৭. ঘুমানোর সময় ডান কাতে কিবলামুখী হয়ে শোয়া সুন্নাত। উপুড় হয়ে শয়ন করতে নিষেধ করা হয়েছে। কারণ এভাবে শয়ন করাকে আল্লাহ তা‘আলা পছন্দ করেন না।

(বুখারী শরীফ, হাঃ নং ৬৩১৪/ সহীহ ইবনে হিব্বান হাঃ নং ৫৫৪৯)

৮. শয়ন করে এ দু‘আ পড়া :

ْبِاسْمِكَ رَبِّىْ وَضَعْتُ جَنْبِىْ وَبِكَ اَرْفَعُه، اِن اَمْسَكْتَ نَفْسِىْ فَاغْفِرْلَهَا وَاِنْ اَرْسَلْتَهَا فَاحْفَظْهَا بِمَا تَحْفَظُ بِه عِبَادَكَ الصَّالِحِيْنْ

(বুখারী শরীপ, হাঃ নং ৬৩২০)

এই দু‘আটিও পড়া :

اَللّٰهُمَّ بِاسْمِكَ اَمُوْتُ وَاَحْيٰ

৯. ঘুমানোর পূর্বে তিনবার لَا اِلٰهَ اِلَّا اللّٰهْ লা-ইলাহা-ইল্লাল্লাহ পড়া৷

১০. ঘুমানোর পূর্বে দুই চোখে তিন-তিনবার সুরমা লাগানো৷

১১. শয়ন করার পর কেন করানে ঘুম না আসলে এই দু‘আ পড়া :

اَعُوْذُ بِكَلِمَاتِ اللّٰهِ التَّامَّةِ مِنْ غَضَبِه وَعِقَابِه وَ شَرِّ عِبَادِه وَ مِنْ هَمَزَاتِ الشَّيَاطِيْنِ وَ اَنْ يَّحْضُرُوْنْ-

(তিরমিযী, হাঃ নং ৩৫২৮)

১২. স্বপ্নে ভয়ংকর কিছু দেখলে, চক্ষু খুলে  বাঁ দিকে হালকা থু-থু ফেলে এই দুুআ পড়া اَعُوْذُ بِاللّٰهِ مِنَ الشَّيْطَانِ وَ مِنْ شَرِّ هٰذِه الرُّؤْيَا- এবং পার্শ পরিবর্তন করেে ঘুমানোো৷

(মুসলিম, হাঃ নং ২২৬২)

১৩. সুযোগ হলে দুপুরে খানার পর কিছুক্ষণ কাইলূল্লাহ করা অর্থাত শয়ন করা। চাই ঘুম আসুক বা না আসুক।

(বুখারী শরীফ, হাঃ নং ৯৩৯)

১৪. ঘুমানোর পূর্বে সূরা আলিফ লাম মীম সিজদা এবং সূরায়ে মুলক পড়া৷

ঘুম থেকে উঠার সুন্নাতসমূহ

১. ঘুম থেকে উঠেই উভয় হাত দ্বারা মুখমণ্ডল এবং চক্ষুদ্বয়কে হালকাভাবে মর্দন করা, যাতে ঘুমের ভাব দূর হয়ে যায়।

(বুখারী শরীফ, হাঃ নং ১৮৩)

২. ঘুম হতে উঠার পর এই দু‘আ পড়া :

اَلْحَمْدُ لِلّٰهِ الَّذِىْ اَحْيَانَا بَعْدَ مَا اَمَاتَنَا وَ اِلَيْهِ النُّشُوْرْ

(বুখারী শরীফ, হাঃ নং ৬৩২৪)

৩. যখনই ঘুম হতে উঠা হয়, তখনই মিসওয়াক করা একটা সুন্নাত। উযু করার সময় উযুর সুন্নাত হিসেবে মিসওয়াক করা।

(বুখারী শরীফ, হাঃ নং ২৪৫/ আবু দাউদ, হাঃ নং ৪৭)

৪. ঘুম থেকে ওঠে اَلْحَمْدُ لِلّٰهِ আলহামদুলিল্লাহ এবং لَا اِلٰهَ اِلّا اللّٰهُ লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ পড়া৷

আল্লাহ আমলের তওফিক দান করুন, আমিন৷

পড়েছেনঃ 486 জন

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *