Rahmania Madrasah Sirajganj

গাইবান্ধায় কালবৈশাখী ঝড়ে ১০ জন ও শীতলক্ষ্যা পাড়ে জাহাজ ডুবে ৫ জন নিহত

কালবৈশাখী ঝড়ে গাইবান্ধার বিভিন্ন উপজেলায় ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। রোববার বিকেলে বিভিন্ন উপজেলায় হঠাৎ করেই শুরু হয় এই কালবৈশাখী ঝড়।


ঝড়ে গাইবান্ধার সদর উপজেলার চারজনের মৃত্যু হয়। তারা হলেন বাদিয়াখালী ইউনিয়নের শ্রীমতি জোছনা রানী (৩৫), রামচন্দ্রপুর ইউনিয়নের হরিণ সিংহা গ্রামের শিশু মনির (৫), আরিফ খা ইউনিয়নের বাসুদেবপুর গ্রামের আরজিনা বেগমকে (২৮) আহত অবস্থায় উদ্ধার করে রংপুর মেডিক্যালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয় ও একই উপজেলার মালিবাড়ি ইউনিয়নের সাহেরা বেগম (৪০)।

পলাশবাড়ী উপজেলায় নিহত হয়েছেন তিনজন। তারা হলেন মোস্তফাপুর গ্রামের আব্বাস আলীর ছেলে আবদুল গাফফার (৪২) ও ডাকেরপাড়া গ্রামের ইউনুছ আলীর স্ত্রী জাহানারা বেগম (৫০) ও মনোহরপুর ইউনিয়নের কুমিদপুর গ্রামের মমতা বেগম।

ফুলছড়ি উপজেলায় নিহত হয়েছেন দু’জন। তারা হলেন কাতলামারি গ্রামের বিশু মিয়ার স্ত্রী শিমুলি বেগম (২৬) ও একই উপজেলার ডাকাতিয়ার চরের হাফিজ উদ্দিন।

সুন্দরগঞ্জ উপজেলার কিশামত হলদিয়া গ্রামের সোলায়মান আলীর স্ত্রী ময়না বেগম (৪৭)।

এ ছাড়া ঝড়ে কাঁচা ঘরবাড়ি ও গাছপালার ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। হঠাৎ শুরু হওয়া ঝড়ে ঘরবাড়ি-গাছপালা ভেঙে পড়ায় জেলার বিভিন্ন উপজেলায় বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।

জেলা ত্রাণ কর্মকর্তা ইদ্রিশ আলী বলেন, ঝড়ে গাইবান্ধা জেলার অসংখ্য ঘরবাড়ি ও গাছপালার ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। তবে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ তাৎক্ষণিকভাবে তিনি জানাতে পারেননি।

এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জেলা প্রশাসক আবদুল মতিন নয়া দিগন্তকে জানান, হঠাৎ বয়ে যাওয়া দমকা হাওয়ায় বিভিন্ন জায়গায় বাড়িঘর ও গাছপালা ভেঙে পড়েছে। ধানসহ বিভিন্ন ফসল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বাতাসে গাছ ভেঙে পড়ায় চার উপজেলায় মোট ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। নিহতদের পরিবারকে প্রশাসনের পক্ষ থেকে ১০ হাজার টাকা করে আর্থিক সহায়তা দেয়া হয়েছে।

এদিকে নারায়ণগঞ্জের শীতলক্ষ্যা নদীতে কার্গো জাহাজের ধাক্কায় অর্ধশতাধিক যাত্রী নিয়ে লঞ্চ ডুবির ঘটনায় পাঁচ নারী যাত্রীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধারের পর লাশগুলো নারায়ণগঞ্জ জেনারেল (ভিক্টোরিয়া) হাসপাতালে নেয়া হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি শাহ জামান। তবে নিহতদের নাম পরিচয় জানা যায়নি। তবে নিখোঁজ ৬জনের পরিচয় পাওয়া গেছে।

এর আগে রোববার সন্ধ্যা সোয়া ৬টার দিকে সদর উপজেলার চর সৈয়দপুর এলাকায় একটি কার্গো জাহাজের ধাক্কায় এসকে-৩ রাবিত আল হাসান নামে লঞ্চটি ডুবে যায়।

ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের নারায়ণগঞ্জের উপ-সহকারী পরিচালক আব্দুল্লাহ আল আরেফীন জানান, পাঁচ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। প্রচন্ড ঝড়-বৃষ্টির কারণে উদ্ধার কাজ ব্যাহত হচ্ছে। তবে আমাদের কার্যক্রম চলছে।

পড়েছেনঃ 37 জন