আরবী তারিখঃ এখন ১৬ জিলহজ ১৪৪৫ হিজরি মুতাবিক, ২৩ জুন ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, রোজ রবিবার, সময় সন্ধ্যা ৬:০৭ মিনিট
খানকাহ এর সুন্নতী ইজতেমা ও মারকাজী মজলিসে আইম্মাহ সমূহ
সুন্নতী ইজতেমাঃ প্রতি বছরের মাহে মুহাররম, মাহে রবিউস সানী ও মাহে রজব এর প্রথম সপ্তাহের বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার হযরাতে সালেকীনদের জন্য রহমানিয়া মাদরাসা সিরাজগঞ্জ প্রাঙ্গনে খানকাহে ইমদাদিয়া আশরাফিয়ার সুন্নতী ইজতেমা অনুষ্ঠিত হবে ইনশাআল্লাহ।
মারকাজী মজলিসে আইম্মাহঃ ১. মাহে শাউয়ালের শেষ শনিবার। ২. মাহে যিলহজের শেষ শনিবার। ৩. মাহে সফরের শেষ শনিবার। ৪. মাহে রবিউস সানীর শেষ শনিবার। ৫. মাহে জুমাদাল আখিরাহ এর শেষ শনিবার। ৬. মাহে রজবের শেষ সপ্তাহে বিষয় ভিত্তিক মজলিস।
বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ- ✓✓ প্রতি আরবী মাসের শেষ বৃহস্পতিবার রহমানিয়া মাদরাসার সকলের জন্য মাসিক সুন্নতী ইজতেমা হবে। ✓✓ প্রতি বছর ২০ শাবান থেকে ৩০ রমাযানুল মুবারক পর্যন্ত ৪০ দিন, রমাযানুল মুবারক এর প্রথম ১৫ দিন, রমাযানুল মুবারক এর শেষ দশক হযরাতে সালেকীনদের জন্য এতেকাফ হবে ইনশাআল্লাহ।
সুন্নতী মজলিস/মজলিসে আইম্মাহ সমূহ (আঞ্চলিক)
সুন্নতী মজলিসঃ ১. ২৯ জুন ২৪ ইং রোজ শনিবার শাহজাদপুরের গাড়াদহ ফিল্ড জামে মসজিদে সুন্নতী মজলিস। ২. ১৩ জুলাই ২৪ ইং রোজ শনিবার উল্লাপাড়ার ডেফলবাড়ী নুরানীয়া হাফিজিয়া মাদরাসায় সুন্নতী মজলিস।
মজলিসে আইম্মাহঃ ১১ জুলাই ২৪ ইং রোজ বৃহস্পতিবার চরমেটুয়ানী মসজিদে ধুকুরিয়াবেড়া ইউনিয়নের মজলিসে আইম্মাহ।

ওয়াজের জন্য যারা চুক্তি করে টাকা নেন তারা আলেম নামের কলঙ্ক, -আল্লামা ওলীপুরী দা. বা.

ওয়াজ করার জন্য সেসব আলেম চুক্তি করে টাকা নেন তারা আলেম নামের কলঙ্ক বলে মন্তব্য করেছেন দেশের প্রখ্যাত আলেমে দীন ও বিশিষ্ট বক্তা মাওলানা নুরুল ইসলাম ওলীপুরী।

তিনি বলেন,  ফেসবুকে দেখলাম, একজন আলেম চুক্তি করে পঞ্চাশ হাজার টাকা নিয়েও মাহফিলে যান নি। যারা চুক্তি করে পয়সা নিয়ে মাহফিলে যান তারা আলেম নামের কলঙ্ক।

গত কয়েকদিন আগে চৌধুরীপাড়ায় শেখ জনুরুদ্দীন দারুল কুরআন মাদরাসা আয়োজিত তাফসিরুল কুরআন মাহফিলের প্রধান অতিথির আলোচনায় মাওলানা ওলীপুরী একথা বলেন।

মাওলানা ওলীপুরী বলেন, আলেম তো সবার আগে নিজেকে জাহান্নাম থেকে বাঁচাবেন, ইলম শেখাবেন এবং সর্বস্তরের জনগণকে আল্লাহর প্রতি ডাকবেন।

তিনি বলেন, আলেম দুই প্রকার।এক. সমাজের দৃষ্টিতে আলেম।সমাজের দৃষ্টিতে আলেম পড়ালেখা করেছে তবে কাজে বাস্তবায়ন নেই। আমলে নেই।

দুই. যিনি ইলম অনুযায়ী আমল করে এবং সেমতে জীবনযাপন করে। আল্লাহর দৃষ্টিতে তিনিই আলেম। মৌলিকভাবে কওমি মাদরাসার উদ্দেশ্যই হলো ইলমানুযায়ী জীবনযাপন করে এমন আলেম তৈরি করা।

Loading