Rahmania Madrasah Sirajganj

ইসরাইলি আগ্রাসন বন্ধ ও ফিলিস্তিন সংকট সমাধানে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে বিশ্ব সমাজের প্রতি আহ্বান

পবিত্র রমযানুল মুবারকে মুসলমানদের প্রথম কিবলা মসজিদুল আকসায় নামাজরত মুসল্লি ও ফিলিস্তিনি জনবসতিতে নিরীহ মুসলমানদের ওপর ইসরাইলি সেনাদের নৃশংস হামলায় হতাহতের ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন বাংলাদেশ কওমি মাদরাসার সর্বোচ্চ অথরিটি আল-হাইয়াতুল উলিয়ার চেয়ারম্যান আল্লামা মাহমূদুল হাসান। তিনি অবিলম্বে ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরাইলি আগ্রাসন ও নির্যাতন বন্ধ এবং ফিলিস্তিন সংকট সমাধানে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে বিশ্ব সমাজকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। আজ (১৩ মে) বৃহস্পতিবার দেশের শীর্ষ উলামা মাশায়েখ, ধর্মপ্রাণ নাগরিক ও সর্বস্তরের তৌহিদি জনতার অনুভূতির আলোকে প্রদত্ত এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, মুসলমানদের প্রথম কিবলা আল আকসাকে সন্ত্রাসী রাষ্ট্র ইসরাইল রমযান মাসজুড়েই নৃশংসতার কেন্দ্রস্থলে পরিণত করে রেখেছে। বিশেষত রমযানের শেষ দশকের প্রায় সন্ধ্যায়ই তারা আল-আকসায় নামাজরত মুসল্লিদের ওপর বর্বরোচিতভাবে সশস্ত্র হামলা চালায়, এমনকি নামাজরত মানুষের ওপর ঝাপিয়ে পড়ে। এ পর্যন্ত ইসরাইলি বাহিনীর নারকীয় তান্ডবে শহীদ ফিলিস্তিনির সংখ্যা বেড়ে ৫৩ জনে পৌঁছেছে। আহত হয়েছেন তিনশ’র বেশি ফিলিস্তিনি। শহীদদের মধ্যে ১৪ শিশু ও ৩ জন নারীও রয়েছেন।.তিনি বলেন, এ ধরনের হামলা চালিয়ে ইসরাইল সুস্পষ্টভাবে আন্তর্জাতিক আইন ও চুক্তি ভঙ্গ করছে এবং একইসাথে চরমভাবে মানবাধিকার লঙ্ঘন করে চলেছে। অথচ এর দায়িত্বশীলরা লোকদেখানো কিছু বুলি আওড়ানো ছাড়া ইসরাইলি সন্ত্রাস থেকে ফিলিস্তিনীদের রক্ষায় কার্যকর কিছুই করছে না। আল্লামা মাহমূদুল হাসান বলেন, ফিলিস্তিনিদের স্বাধীন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার আশা ক্রমেই হতাশায় পরিণত হচ্ছে। বিপরীতে ইসরাইলের নিয়ন্ত্রণ আরো নিরঙ্কুশ হচ্ছে। আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করে তারা প্রতিদিন নতুন নতুন ফিলিস্তিনি এলাকা দখলে নিচ্ছে। ফিলিস্তিনিরা রক্ত ঝরিয়ে প্রতিবাদ করছে, তবে কোনো ফল হচ্ছে না। বেআইনিভাবে ইসরাইল এসব করছে, অথচ তা রোখার কেউ নেই।তিনি আরো বলেন, গাজার আড়াই লক্ষেরও বেশি ফিলিস্তিনির ওপর অবরোধ চাপিয়ে দিয়ে তাদের বিশ্বের বৃহত্তম খোলা কারাগারে আবদ্ধ করে রাখা হয়েছে। এজন্য তিনি জাতিসঙ্ঘ, ওআইসিসহ বিশ্ব মুসলিম ও বিশ্ব সম্প্রদায়কে জরুরিভিত্তিতে ফিলিস্তিনের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান। আল্লামা মাহমূদুল হাসান আরো বলেন, আল আকসা রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের মিরাজের স্মৃতি বিজড়িত পবিত্র স্থান এবং মুসলমানদের তৃতীয় গুরুত্বপূর্ণ মসজিদ । তাই আল আকসা শুধু ফিলিস্তিনের বিষয় নয়, বরং বিশ্ব মুসলিমের বিষয়। তিনি পবিত্র মাসে ইসরাইলি বর্বরতার বিরুদ্ধে বিশ্বের বিভিন্ন মুসলিম দেশের পাশাপাশি বাংলাদেশ সরকারের প্রতিবাদী অবস্থানকে মোবারকবাদ জানিয়ে এ বিষয়ে জোরালো কূটনৈতিক উদ্যোগ এবং ইসরাইলের বিরুদ্ধে সম্মিলিতভাবে কার্যকর চাপ সৃষ্টির আহ্বান জানান। পাশাপাশি তিনি কওমি মাদরাসা, মকতব, হিফজখানা খুলে দেওয়াসহ কারাবন্দী ওলামায়ে কেরামকে সত্ত্বর মুক্তিদান ও মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান।

পড়েছেনঃ 85 জন