Rahmania Madrasah Sirajganj

আফগানিস্তান দখল করে দাসত্বের শৃঙ্খল ভেঙেছে তালিবান: ইমরান খান

আফগানিস্তান দখল করে দাসত্বের শৃঙ্খল ভেঙে দিয়েছে তালিবান। এই মন্তব্য করলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। গতকালই কাবুল দখল করে আফগানিস্তান সরকারকে কবর দিয়ে দিয়েছে তালিবান। প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট অশরফ ঘানি দেশ ছেড়ে পালিয়েছেন। পাকিস্তান-সমর্থিত তালিবান আফগানিস্তানের দখল নেওয়াতে মহিলাদের অধিকার ও শিক্ষা, নাগরিক অধিকার-সহ নানা বিষয়ে আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।

শিক্ষার মাধ্যম হিসেবে ইংরেজি এবং সংস্কৃতির বিষয়ে কথা বলতে গিয়ে ইমরান খান বলেন, আপনি যদি অন্য সংস্কৃতিকে দখল করে নেন এবং মনস্তাত্ত্বিকভাবে বশীভূত হন। তবে দয়া করে মনে রাখবেন, এটি প্রকৃত দাসত্বের চেয়েও খারাপ। এটা থেকে বেরিয়ে আসা কঠিন। সাংস্কৃতিক দাসত্বের শৃঙ্খল থেকে। আফগানিস্তানে এখন যা ঘটছে, তারা দাসত্বের শৃঙ্খল ভেঙে ফেলেছে। শয়ে শয়ে মানুষের বিমানে ওঠার হুড়োহুড়িতে কাবুল বিমানবন্দরে ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। সূত্র: লেটেস্ট লি নিউজ ইন্ডিয়া।

এদিকে ‘কারো জান-মাল ও সম্মানের যেন ক্ষতি করা না হয়’ তালেবান সদস্যদের দেওয়া এক সতর্ক বার্তায় এ মন্তব্য করেন তালেবানের মিডিয়া মুখপাত্র সোহেল শাহীন।

সতর্ক বার্তায় তিনি বলেন, ইমারতে ইসলামিয়ার পক্ষ থেকে তালেবান সদস্যদের এই নির্দেশনা দেয়া হচ্ছে যে, তাদের পক্ষ থেকে যেন কারো জান-মাল ও ইজ্জত-আবরুর ওপর হামলা করা না হয় এবং কারো ক্ষতি করা না হয়।

তিনি আরো বলেন, ‘তালেবান সদস্যদের আরো একবার সতর্ক করা হচ্ছে, কারো বাড়ি-ঘরে অনুমতি ছাড়া প্রবেশ করবেন না’।

উল্লেখ্য ২০০১ সালের পর আবারো আফগানিস্তানের ক্ষমতায় তালেবান। আফগানিস্তানের পটপরিবর্তন ঘটেছে রক্তপাতহীনভাবেই। গতকাল (১৫ আগস্ট) পদত্যাগ করেছেন আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট আশরাফ গানি। কাবুল দখলের কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই তিনি পদত্যাগ করেন। তার পদত্যাগের পর তালেবানের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করা হয়।

ক্ষমতা নিয়ন্ত্রণের পর আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে প্রবেশের পর ‘সাধারণ ক্ষমা’ ঘোষণা করেছেন তালেবান যোদ্ধারা। তালেবানের মুখপাত্র সুহাইল শাহিন এক ঘোষণায় পুরো আফগানিস্তানে ‘সাধারণ ক্ষমা’ ঘোষণা করেন।

তিনি বলেন, ইসলামী ইমারত আফগানিস্তানের দরজা ওই ব্যক্তিদের জন্যও উন্মুক্ত থাকবে যারা আমাদের বিরুদ্ধে হামলায় সহযোগিতা করেছে। সুহাইল শাহিন আরও বলেন, কাবুলের দুর্নীতিগ্রস্থ সরকারের সঙ্গে জড়িত কর্মকর্তাদের জন্যও ইসলামী ইমারত আফগানিস্তানের সব দরজা খোলা থাকবে।

পড়েছেনঃ 83 জন