আরবী তারিখঃ এখন ৫ শাওয়াল ১৪৪৫ হিজরি মুতাবিক ১৪ এপ্রিল ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, রোজ রবিবার, সময় রাত ৮:৪৯ মিনিট
এলানঃ-
১৪৪৫-১৪৪৬ হিজরী, ২০২৪-২০২৫ ইং এর মাসিক সুন্নতী ইজতেমা সমূহ
* ২৫ এপ্রিল ২৪ ইং বৃহস্পতিবার মাগরিব-ইশা মাদরাসার সকলের জন্য
* ৩০-৩১ মে ২৪ ইং বৃহস্পতিবার ফজর-শুক্রবার মাগরিব পর্যন্ত সালেকীনদের জন্য
* ২৭ জুন ২৪ ইং বৃহস্পতিবার মাগরিব-ইশা মাদরাসার সকলের জন্য
* ২৫-২৬ জুলাই ২৪ ইং বৃহস্পতিবার ফজর-শুক্রবার মাগরিব পর্যন্ত সালেকীনদের জন্য
* ২৯ আগষ্ট ২৪ ইং বৃহস্পতিবার মাগরিব-ইশা মাদরাসার সকলের জন্য
* ২৬-২৭ সেপ্টেম্বর ২৪ ইং বৃহস্পতিবার ফজর-শুক্রবার মাগরিব পর্যন্ত সালেকীনদের জন্য
* ২৪ অক্টোবর ২৪ ইং বৃহস্পতিবার মাগরিব-ইশা মাদরাসার সকলের জন্য
* ২৮-২৯ নভেম্বর ২৪ ইং বৃহস্পতিবার ফজর-শুক্রবার মাগরিব পর্যন্ত সালেকীনদের জন্য
* ২৬ ডিসেম্বর ২৪ ইং বৃহস্পতিবার মাগরিব-ইশা মাদরাসার সকলের জন্য
* ৩০-৩১ জানুয়ারী ২৫ ইং বৃহস্পতিবার ফজর-শুক্রবার মাগরিব পর্যন্ত সালেকীনদের জন্য
* ২৭ ফেব্রুয়ারী ২৫ ইং বৃহস্পতিবার মাগরিব-ইশা মাদরাসার সকলের জন্য
* মার্চ ২৫ ইং এজতেমা সালেকীনদের জন্য

অনাবৃষ্টি-দুর্ভিক্ষ-খরা, অতিবৃষ্টি-ঝড়-বৃষ্টি বা বজ্রপাতে যে দুআগুলো পড়তে হয়!


نحمده و نصلي علي رسوله الكريم اما بعد

আলহামদুলিল্লাহ, আল্লাহ তাআলার সমস্ত প্রশংসা, আল্লাহ তাআলার নেহায়েত ফজল ও করম যে, আল্লাহ তায়ালা আমাদেরকে শ্রেষ্ঠ মাখলুক এবং শ্রেষ্ঠ উম্মত বানিয়েছেন, আমাদেরকে বানিয়েছেন আল্লাহ তাআলার ইবাদত করার জন্য এবং অন্যান্য সকল মাখলুককে বানিয়েছেন আমাদের সেবা করার জন্য, এই আকাশ-বাতাস, জমিন-আসমান, তরুলতা সবকিছুই আমাদের খেদমতের জন্য আল্লাহ তাআলা সৃষ্টি করেছেন, আমরা যদি আল্লাহ তাআলার সত্তিকারের বান্দা হতে পারি, তাহলে দুনিয়ার অন্যান্য সকল মাখলুক আমার-আপনার গোলাম হয়ে যাবে, আমাদের গুনাহের কারণে বৃষ্টির সময় বৃষ্টি হচ্ছে না, গরমের সময় ঠান্ডা নাই, প্রচন্ড শীতের সময় গরম যতটুকু প্রয়োজন, তা না হয়ে অতিরিক্ত শীত, বৃষ্টির সময় শিলাবৃষ্টিসহ বিভিন্ন ধরনের আযাব এবং গজব আমাদের ওপর আসছে, এগুলো সবই আমাদের গুনাহের কারণে হচ্ছে, রসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের সুন্নত থেকে সরে যাওয়ার কারণে হচ্ছে, আসুন আমরা জেনে নেই রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম যখন বৃষ্টির প্রয়োজন হত তখন কোন দুআ পড়তেন, যখন অতিরিক্ত বৃষ্টি হতো তখন কোন দুআ পড়তেন, যখন ঝড়ো হাওয়া বা মেঘের গর্জন হতো তখন কোন দুআ পড়তেন৷

 অনাবৃষ্টি, প্রচন্ড গরম বা দুর্ভিক্ষের সময়রহমতের বৃষ্টি, উপকারী বৃষ্টি দ্রুত পাওয়ার জন্য পড়বে :

اَللّٰهُمَّ اسْقِنَا اَللّٰهُمَّ اسْقِنَا اَللّٰهُمَّ اسْقِنَا، اَللّٰهُمَّ اَغِثْنَا اَللّٰهُمَّ اَغِثْنَا اَللّٰهُمَّ اَغِثْنَا

উচ্চারন : আল্লাহুম্মাস‌্ক্বিনা আল্লাহুম্মাস‌্ক্বিনা আল্লাহুম্মাস‌্ক্বিনা, আল্লাহুম্মা আগিছনা আল্লাহুম্মা আগিছনা আল্লাহুম্মা আগিছনা৷

সহিহুল বুখারী, ২/২৮৷

اَللّٰهُمَّ اسْقِنَا غَيْثًا مُّغِيْثًا مَّرِيْئًا نَافِعًا، غَيْرَ ضَارٍّ عَاجِلًا غَيْرَ اٰجِلٍ

উচ্চারন : আল্লাহুম্মাস্‌কিনা গইছাম মুগিছাম মারিআন নাফিআ, গইরা যার্‌রিন ’আযিলান গয়রা আযিলিন৷

সুনানে আবু দাউদ, ১/৩৭৪

 যখন আকাশ মেঘাচ্ছন্ন হয়ে যাবে, তখন পড়বে :

اَللّٰهُمَّ اِنَّا نَعُوذُبِكَ مِنْ شَرِّ مَا أُرْسِلَ بِه

উচ্চারন : আল্লাহুম্মা ইন্না নাউযুবিকা মিন শার্‌রি মা উরসিলা বিহি৷

ইবনে মাজাহ, ৫/৫১

※ যখন বৃষ্টি শুরু হলো, তখন পড়বে :

اَللّٰهُمَّ صَيِّبًا نَافِعًا اَللّٰهُمَّ صَيِّبًا نَافِعًا

উচ্চারন : আল্লাহুম্মা সয়্যিবান নাফিআ আল্লাহুম্মা সয়্যিবান নাফিআ৷

ইবনে মাজাহ, ৫/৫১

※ যখন অতিবৃষ্টি শুরু হলো, তখন পড়বে :

َاللَّهُمَّ حَوَالَيْنَا وَلَا عَلَيْنَا اللَّهُمَّ عَلَى الْآكَامِ و الْجِبَالِ وَ الْاٰجَامِ وَ الظِّرَابِ وَ الْأَوْدِيَةِ وَمَنَابَتِ الشَّجَرِ

উচ্চারন : আল্লাহুম্মা হাওয়ালাইনা ওলা আলাইনা আল্লাহুম্মা আলাল আকামি ওল জিবালি ওল আযামি ওয্‌যিরাবি ওল আউদিয়াতি ওআ মানাবাতিশ শাজারি৷

সহিহুল বুখারি, ২/২৮

 মেঘের গর্জন ও বজ্রের আওয়াজ বা বজ্রপাতের সময় বারবার পড়়বে :
َاَللّٰهُمَّ لَا تَقْتُلْنَا بَِغَضَبِكَ وَ لَا تُهْلِكْنَا بِعَذَابِك وَ عَافِنَا قَبْلَ ذٰلِكَ

উচ্চারনঃ আল্লহুম্মা লা তাক্বতুলনা বি গযাবিকা ওলা তুহ্‌ লিকনা বি’আজাবিকা ওয়া ‘আফিনা ক্ববলা যালিকা৷

সুনানে তিরমিজি, ৫/৫০৩

 ঝড় বা তুুুুফান শুরু হলে পড়বে :
اللَّهُمَّ إِنِّي أَسْأَلُكَ خَيْرَهَا’ وَخَيْرَ مَا فِيهَا’ وَخَيْرَ مَا أُرْسِلَتْ بِهِ’ وَأَعُوذُ بِكَ مِنْ شَرِّهَا’ وَشَرِّ مَا فِيهَا’ وَشَرِّ مَا أُرْسِلَتْ بِهِ

উচ্চারন :  আল্লাহুম্মা ইন্নী আসআলুকা খাইরাহা ওআ খাইরা মা ফীহা ওআ খাইরা মা উরসিলাত বিহি, ওআ আ‘ঊযুবিকা মিন শার‌্‌রিহা, ওয়া শাররি মা ফীহা, ওয়া শার্‌রি মা উরসিলাত বিহি।

সুনানে তিরমিজি, ২/৬১৬

আল্লাহ তাআলা আমাদেরকে উপরোক্ত দুআ সমূহ সময়মতো পাঠ করার তৌফিক দান করুন, আমিন৷

Loading

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *